বিধায়ক ইদ্রিশ আলির অফিসে রাত এগারোটা পর্যন্ত ভিড় সামলাচ্ছেন এবং শুনছেন মানুষের কথা



এহসানুল হক, হাওড়াঃ উলুবেড়িয়া পূর্ব বিধানসভা কেন্দ্রের উলুবেড়িয়া বাজারপাড়াতে বিধায়ক ইদ্রিশ আলির দলীয় অফিসে বিকাল পাঁচটা থেকে রাত্রি 11টা পয’ন্ত বহু মানুষের ভিড় হয়।কেউ আসেন Residence certificate নিতে ।কেউ বা আসেন চাকরী ব্যাপারে কোন স্বই করাতে ।আবার অনেক তূণমুল কংগ্রেস নেতা কর্মীরা নানা অভিযোগ শুনাতে আসে কিছু তূণমুল কংগ্রেস নেতা কমী’দের বিরুদ্ধে ।
বিধায়ক ইদ্রিশ আলি সকলের কথা মনযোগ দিয়ে শুনেন ।হাসি মুখে স্বই করে দেন ।অভিযোগকারীদের বলেন -দলের মধ্যে ভালমন্দ লোক ছিল, আছে এবং থাকবে ।কিন্তু আমাদের নেত্রী রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি সততার প্রতীক, উন্নয়নের কান্ডারি, মানুষের বন্ধু ।তিনি সব লক্ষ্য রাখছেন ।কে কি দূনীতি করছে বা কারা কারা দলকে ভালোবেসে কাজ করে যাচ্ছে ।তিনি বলেন মমতা ব্যানার্জির প্রতি আস্থা রেখে আপনারা দলের কাজ করে যান ।নেত্রী মমতা ব্যানার্জির কাছ থেকে সুবিচার পাবেন ।অন্যায় করলে তিনি দলের লোক হলেও তাকে শাস্তি দেন।যেমন ইকবাল মুন্নাকে জেল খাটতে হয়েছে ।আজও তূণমুল কংগ্রেসের কাউন্সিলর শম্ভু নাথ কাউকে জেল খাটতে হচ্ছে ।বিজেপি সহ বিরোধীদের বিরুদ্ধে আন্দোলন করুন ।দলের নিদে’শ মেনে চলুন ।ভারতবর্ষের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী মূখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির কাছ থেকে স্বীকৃতি আজ না হয় কাল পাবেন ।
উল্লেখযোগ্য নেতা কর্মীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, 22 নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি নাসিম আহমেদ, সেখ শাহনওয়াজ , 17 নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি আবুল বাশার, খলিসানী অন্চলের তূনমুল কংগ্রেস নেতা গৌর মন্ডল, সিটু দাস, তূনমুল কংগ্রেসের পঞ্চায়েত সদস্য সেখ
জিয়াউল, ২৯ নম্বর ওয়ার্ডের জয়ন্ত চৌধুরী, চব্বিশ নম্বর ওয়ার্ডের ডাঃ আব্বাস সহ বিভিন্ন ওয়ার্ডের নেতা কর্মীরা।

error: